ঠাকুরগাঁও ১ আসনে জনপ্রিয়তায় শীর্ষে সাহেদুল ইসলাম সাহেদ

বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮ | ৭:৪৫ অপরাহ্ণ |

ঠাকুরগাঁও ১ আসনে জনপ্রিয়তায় শীর্ষে সাহেদুল ইসলাম সাহেদ
সাহেদুল ইসলাম

প্রান্ত দাসঃ  শুরুটা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঠাকুরগাঁও জেলাতে আগমনকে কেন্দ্র করে। অনুষ্ঠানে উপস্থিত জনগন লক্ষ্য করলো প্রধানমন্ত্রীর সাথে এক তরুণ যুবককে।

কে এই যুবক?  নেত্রীর সাথে তার ছবিগুলো ফেইসবুকে ভাইরাল হয়ে গেলো, নাম তার জানা গেলো সাহেদুল ইসলাম সাহেদ। কে এই সাহেদ?

 

সবার একই প্রশ্ন। খোঁজ নিয়ে জানা গেলো সাহেদ হলো ঠাকুরগাঁও জেলা আওয়ামী লীগের প্রাণ, জনগণ যাকে এখনো রিদয়ে রেখেছে মরহুম খাদেমুল ইসলাম এমপির সুযোগ্য সন্তান তিনি।

 

মরহুম খাদেমুল ইসলাম ছাত্র জীবনেই বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও তাঁর নেতৃত্বে আস্থাশীল হয়ে ছাত্র জীবনেই রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়েন। পরবর্তী তে বিভিন্ন গণতান্ত্রিক আন্দোলন সংগ্রামে সক্রিয় অংশগ্রহনের ধারাবাহিকতায় মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেন।

 

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপিরবারে হত্যার পর সারাদেশে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী দের উপর যে জুলুম নির্যাতন নেমে আসে সেই রোষানল থেকে তিনি-ও মুক্তি পাননি । তাকে দশ মাস কারাগারে অন্তরীণ রাখা হয় ।

 

জেল থেকে মুক্তি পেয়ে তিনি আওয়ামী রাজনীতির সবচেয়ে সংকটাপন্ন সময়ে ঠাকুরগাঁও মহকুমা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব গ্রহন করে দল কে সংগঠিত করেন । এরই ধারাবাহিকতায় পরবর্তী তে জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও সভাপতি নির্বাচিত হন।

 

মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি সফলভাবে সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন । তিনি ১৯৮৬, ১৯৯১ ও ১৯৯৬ সালে ঠাকুরগাও-১ আসন হতে তিনবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন । অবশেষে ১৯৯৬ সালের ১৭-ই ডিসেম্বর হৃদযন্ত্রের ক্রীড়া বন্ধ হয়ে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন এই জননেতা ।  পরে উপ নির্বাচনে বর্তমান এমপি রমেশ চন্দ্র সেন নৌকা প্রতীকে নির্বাচিত হোন।

 

খাদেমুল ইসলামের মৃত্যুর পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগ থেকে সদ্য এমএ পাশ করা সাহেদুল ইসলাম কে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাপানে বাংলাদেশী হাইকমিশনের কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ দেন।

 

পরবর্তীতে ২০০৮ সালের নির্বাচনে জয়ী হয়ে সরকার গঠনের পর পুনরায় সাহেদুল ইসলাম কে নিউইয়র্কে বাংলাদেশ কনস্যুলেট অফিসের ডেপুটি কনসাল জেনারেল নিযুক্ত করেন। যার দায়িত্ব সাহেদ সফলতার সাথে পালন করেন ।

 

বঙ্গবন্ধুর প্রিয় ব্যক্তি ঠাকুরগাঁওয়ের উন্নয়নের রূপকার ও জনমানুষের অকৃত্রিম বন্ধু প্রয়াত এমপি  খাদেমুল ইসলাম যেভাবে শ্রেণী ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকলের সাথে মিশেছেন এবং পচাত্তর পরবর্তী দলের দুঃসময়ে হাল ধরেছেন তা সকলেই শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ  রেখেছেন ।

 

জল্পনা আরো বেড়ে গেলো, সাইদুল ইসলাম সাহেদ ঠাকুরগাঁও এসে সকলকে জানিয়ে দিলো, “তিনি আর আমেরিকা ফিরে যাবে না, ঠাকুরগাঁও এ থেকে রাজনীতি করবেন। ”

 

এদিকে দীর্ঘ ২২ বছরে ঠাকুরগাঁও ১ আসনে আওয়ামীলীগের রাজনীতি শোচনীয় পর্যায়ে। দলীয় কোন্দল, রাজনৈতিক প্রতিহিংসা, গ্রুপিং, সিন্ডিকেট ইত্যাদি। পৌরসভা হারের পর সদর উপজেলায় হার, এভাবে চললে আগামী নির্বাচনে ১ আসনটিও হারিয়ে ফেলবে আওয়ামী লীগ। শান্তিপ্রিয় ঠাকুরগাঁও এর মানুষেরা গুটিকয়েক নেতার দাদাগিরির কাছে জিম্মি। সন্ত্রাস, মাদক, চাঁদাবাজি, জমিদখলের মতো ঘটনাগুলো বেড়েই চলেছে।

সকলের ধারণা এসব হতে এক মাত্র খাদেমুল এমপির ছেলে সাহেদই পারবে মুক্তি দিতে, যেভাবে তার বাবা এক সময় জনগণকে বাঁচিয়েছিলো। তাই ফেসবুক থেকে শুরু করে, শহর- গ্রাম- ইউনিয়ন সব জায়গা সাহেদ ঝড়ে কাঁপছে। নেত্রীর কাছে জনগণের একটাই দাবি ” যেনং করে হোক, হামার সাহেদক নমিনেশন দিবায় হবে”।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

কলেজপাড়া,মাজার রোড,ঠাকুরগাঁও-৫১০০, বার্তা বিভাগ-01763234375 অথবা 01673974507, ইমেইল- sangbadgallery7@gmail.com
প্রধান কার্যালয়ঃ বঙ্গবন্ধু সড়ক, আধুনিক সদর হাসপাতাল সংলগ্ন, বাসস্ট্যান্ড, ঠাকুরগাঁও-৫১০০

2012-2016 কপি রাইট আইন অনুযায়ী সংবাদ-গ্যালারি.কম এর কোন সংবাদ ছবি ভিডিও কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া অন্য কোথায় প্রকাশ করা আইনত অপরাধ

Development by: webnewsdesign.com