ময়মনসিংহে কিশোরী গণধর্ষণ, ধর্ষক আটক ॥ ভিডিও উদ্ধার

শুক্রবার, ০৫ জুলাই ২০১৯ | ১১:৫৪ পূর্বাহ্ণ |

ময়মনসিংহে কিশোরী গণধর্ষণ, ধর্ষক আটক ॥ ভিডিও উদ্ধার
প্রতিনিধির পাঠানো তথ্য ও ছবিতে ডেস্ক রিপোর্ট

ময়মনসিংহে কিশোরী গণধর্ষণের অভিযোগের কয়েক ঘন্টার মধ্যে মূলহোতা ধর্ষক কাজল মিয়া আটক করেছে র‌্যাব-১৪। কাজল মিয়ার বাড়ি ময়মনসিংহ সিটির আকুয়া উলঙ্গা পাড়ায়।

বৃহস্পতিবার (৪জুলাই) দুপুরে র‌্যাব-১৪ ময়মনসিংহের মিডিয়া অফিসার ও সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ তফিকুল ইসলাম এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান।

প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি আরো জানান, বৃহস্পতিবার সকালে র‌্যাব-১৪ এর কার্যালয়ে এসে এক কিশোরী অভিযোগ করেন, গত বুধবার তার বোন ও দুলাভাই বাড়িতে না থাকার সুযোগে কাজল ও কাউছার নামে দুই ব্যক্তি ইলেক্ট্রিক কাজের কথা বলে বাসায় ঢুকে। পরে ঐ দুই ব্যক্তি ৭ম শ্রেণী পড়ুয়া কিশোরীকে তাদের সাথে দৈহিক মেলামেশার প্রস্তাব দেয়। তাদের প্রস্তাবে ঐ কিশোরী রাজী না হলে তাকে হত্যার হুমকিসহ ভয়ভীতি দেখিয়ে কিশোরীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এ সময় অভিযুক্তরা ধর্ষণের ঘটনা ভিডিও করে এবং পরে তারা ঐ ভিডিও দেখিয়ে কিশোরীর পরিবারের কাছে ৫ লাখ টাকা দাবী করে।

র‌্যাব-১৪ এর অধিনায়কের কাছে এ ধরণের অভিযোগ করায়, কোন কালক্ষেপন না করে র‌্যাবের গোয়েন্দা বিভাগের সহায়তায় মিডিয়া অফিসার ও সহকারী পুলিশ সুপার তফিকুল আলমের নেতৃত্বে একটি টিম ধর্ষকদের আটকে অভিযানে নামে। অভিযানে তাৎক্ষনিক ধর্ষকদের মূলহোতা কাজল মিয়াকে আটক করা হয়। কাজল মিয়া আকুয়া উলঙ্গাপাড়ার মৃত আবু হানিফের ছেলে।

র‌্যাব জানায়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃত কাজল মিয়া ধর্ষণের অপরাধ স্বীকার করেছে। এছাড়া তার কাছ থেকে ঐ ভিডিও উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধারকৃত ভিডিওতে ধর্ষণের আলামত প্রমাণ মিলেছে। কাজল মিয়াকে কোতোয়ালী পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হবে। এ ঘটনায় মামলা দায়ের করা হবে।

র‌্যাবের অধিনায়ক এফতেখার আহম্মেদ বলেন, কিশোরী ধর্ষণের মত জঘন্য অপরাধের অভিযোগ পেয়ে তাৎনিক সহকারী পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে একটি টিমকে নির্দেশ দেই যেখান থেকেই হোক এই জঘন্য অপরাধীকে আটক করে নিয়ে আসতে হবে। ঐ নির্দেশের আলোকে মাত্র কয়েকঘন্টার মধ্যেই কাজল মিয়াকে আটক করে দলটি।

পুলিশ সহ একাধিক সুত্রে জানা গেছে, কাজল মিয়া একজন ভয়ংকর অপরাধী। তার বিরুদ্ধে এক বিধবার জায়গা দখল, ঘরে তালা লাগিয়ে দেয়া, বসতবাড়িতে যাতায়াতের রাস্তা বন্ধ করে দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া আকুয়া সালেহা আচার ফুড প্রডাক্টস ও ঐ প্রতিষ্ঠানের মালিকের বাড়িতে হামলা, গোলাম মোস্তফা নামক এক ঠিকাদারের জমি দখল করে তার কাছে চাঁদা দাবী করে। চাঁদাদাবীর ঘটনায় মামলা হলে জামিনে মামলার বাদিসহ অন্যান্যদের খুনের হুমকি, সালেহা আচার কোম্পানী বন্ধ করে দেওয়া, মোটরসাইকেল যোগে মোড়লবাড়ি এলাকায় মহড়া, খুনের হুমকি, নয়াপাড়ায় রাস্তা বন্ধকরণ, ওয়ারলেস গেইটের দণি পাশ এলাকায় জুয়ার আসর প্রতিষ্ঠাসহ মাদক ব্যবসার অভিযোগ রয়েছে। তার বিরুদ্ধে একাধিক মামলাও রয়েছে।

গত ১০ জুলাই আদালত থেকে বের হয়ে আবারও নানা অপরাধ, বিভিন্ন লোকজন ও মামলার বাদি এবং পরিবারকে ভয়ভীতি হুমকি দিয়ে আসতে থাকাবস্থায় ৩ জুলাই কিশোরী ধষর্ণের মত জঘন্য অপরাধ করে। এদিকে স্থানীয়বাসি গণধর্ষণে অপর অভিযুক্ত কাউছারকে জরুরীভাবে গ্রেফতারের দাবী উঠেছে।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

ঠাকুরগাঁওয়ে ১৫০ পিচ ইয়াবা সহ ডিবিসি/জাগো নিউজের জেলা প্রতিনিধি রিপন ও তার সহযোগি আটক

কলেজপাড়া,মাজার রোড,ঠাকুরগাঁও-৫১০০, বার্তা বিভাগ-01763234375 অথবা 01673974507, ইমেইল- sangbadgallery7@gmail.com
প্রধান কার্যালয়ঃ বঙ্গবন্ধু সড়ক, আধুনিক সদর হাসপাতাল সংলগ্ন, বাসস্ট্যান্ড, ঠাকুরগাঁও-৫১০০

2012-2016 কপি রাইট আইন অনুযায়ী সংবাদ-গ্যালারি.কম এর কোন সংবাদ ছবি ভিডিও কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া অন্য কোথায় প্রকাশ করা আইনত অপরাধ

Development by: webnewsdesign.com