এনটিআরসি এর মাধ্যমে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া সংস্কার করা জরুরী-মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ প্রিন্স…

শুক্রবার, ১০ এপ্রিল ২০২০ | ২:২৯ অপরাহ্ণ |

এনটিআরসি এর মাধ্যমে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া সংস্কার করা জরুরী-মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ প্রিন্স…
মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ প্রিন্স

সুশিক্ষাই শক্তি, মুক্তি ও উন্নতি। আবার কুশিক্ষাই অবনতি ও ধ্বংস। একজন শিক্ষার্থীর পরিপূর্ণ ব্যক্তিত্ব পরিগঠন , নৈতিক মূল্যবোধ সৃষ্টি, চেতনাগত,ধারণাগত ও বুদ্ধি বৃত্তিক আবেগ অনুভূতির বিকাশ, মানবিক ও আধ্যাত্মিক গুনাবলীর বিকাশ ঘটানোর পরিপূর্ণ দায়িত্ব একজন শিক্ষকের ওপর অনেকাংশে নির্ভরশীল।

অপ্রিয় হলেও সত্য শুধু নিয়োগ প্রক্রিয়ার ত্রুটির কারণে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে উল্লেখিত বৈশিষ্ট্যসমূহ শিক্ষার্থীর মধ্যে জাগিয়ে তোলার মতো মানসম্মত শিক্ষকের প্রচন্ড অভাব রয়েছে। ফলে শিক্ষার অবকাঠামোগত ব্যাপক প্রসার লাভ করলেও শিক্ষার মান নিয়ে যথেষ্ট প্রশ্ন রয়োছে।


সুযোগ্য শিক্ষকই কেবল শিক্ষার মান উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। আর এ সুযোগ্য শিক্ষক প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে পারে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া যুগোপযোগী করা ও এ পেশায় আকর্ষণীয় সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করা।

বর্তমান শিক্ষাবান্ধব সরকার মানসম্মত শিক্ষক সংগ্রহের লক্ষ্যে গত কয়েক বছর যাবত প্রধান ও সহকারী প্রধান শিক্ষক ব্যতীত বাকী সব শিক্ষক নিয়োগ ম্যানেজিং কমিটি বা গভর্নিং বডির পরিবর্তে এনটিআরসির অধীনে নিয়ে আসেন। যা নিয়োগ প্রাপ্ত একজন শিক্ষকের সামাজিক মর্যাদা বৃদ্ধি ও নিয়োগ ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা এনেছে অনেকাংশে। সরকারের এ উদ্যেগ যথেষ্ট প্রশংসিত হলেও সুযোগ্য শিক্ষক প্রাপ্তিতে কালক্রমে এ নিয়োগ প্রক্রিয়া লক্ষ্য অর্জনে কাংখিত ভূমিকা রাখতে পারেনি বলে আমি মনে করি।

শুধুমাত্র নৈর্ব্যক্তিক অভীক্ষার মাধ্যমে মানসম্মত শিক্ষক প্রাপ্তি আশা করা যায় না। প্রাণবন্ত ও ফলপ্রসু শ্রেণি কার্যক্রম পরিচালনার লক্ষ্যে একজন শিক্ষকের নিম্নলিখিত গুণাবলী থাকা খুবই জরুরী –
১. শিক্ষকের ব্যক্তিত্ব
২. শ্রেণির নিয়ন্ত্রণ দক্ষতা
৩. শিক্ষকের ভোকাল /বাচনভঙ্গি বা কন্ঠস্বর
৪. পাঠদানের দক্ষতা বা কৌশল
৫. শারিরীক যোগ্যতা ইত্যাদি

শুধু নৈর্ব্যক্তিক অভীক্ষার মাধ্যমে বর্তমান প্রক্রিয়ায় শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হলে একজন শিক্ষকের উপরোক্ত বৈশিষ্ট্য সমূহ যাচাই করা সম্ভব ? ইতিমধ্যে এ প্রক্রিয়ায় যেসব শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হয়েছে তার একটি বাস্তব ত্রুটিপূর্ণ উদাহরণ তুলে ধরছি- যে বিষয়ের শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হলো তার একাডেমিক রেজাল্ট খুবই চমৎকার,নৈর্ব্যক্তিক অভীক্ষায় ঈর্ষনীয় সাফল্য দেখিয়ে নিয়োগও পেয়েছেন। বাস্তবে দেখা গেল তার কন্ঠস্বর বিরক্তিকর, শিক্ষার্থীরা তার ক্লাসে অতি বিশৃঙ্খল, সাইজে খর্বাকার হওয়ায় শিক্ষার্থীরা তার ভালো কথাও শুনতে চায়না,সার্বিক পারফরম্যান্স খুবই বাজে।প্রতিষ্ঠান প্রধান অতিষ্ঠ কিন্তু এনটিআরসির মাধ্যমে নিয়োগ ও এমপিওভূক্ত হওয়ায় প্রত্যাশিত ব্যবস্থা নিতে পারছেনা,দিনের পর দিন শিক্ষার্থীরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে এবং হবে। শুধুমাত্র নৈর্ব্যক্তিক অভীক্ষায় বর্তমান প্রক্রিয়ায় নিয়োগপ্রাপ্ত বেশীরভাগ শিক্ষকই এ পরিস্থিতির। ভুক্তভোগী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তথা শিক্ষার মান।

তাই বাস্তব পরিস্থিতির স্বাক্ষী হিসেবে শিক্ষক ও শিক্ষার মান নিশ্চিত কল্পে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়ায় নিম্নোক্ত ধাপগুলি অনুসরণে যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে জোর সুপারিশ করছি-
ধাপ-১. নৈর্ব্যক্তিক অভীক্ষা ১০০ নম্বর।
ধাপ-২. বিষয় ভিত্তিক লিখিত পরীক্ষা ১০০ নম্বর।
ধাপ-৩. মৌখিক পরীক্ষা ৫০ নম্বর।
ধাপ-৪. সরাসরি শ্রেণীকক্ষে পাঠদান মূল্যায়ন ৫০ নম্বর।

এনটিআরসির পরবর্তী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা হতে আমার প্রস্তাবিত পরীক্ষা প্রক্রিয়া চালু করা হলে আগামী ২/৩ বছরের মধ্যেই প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শূন্যপদে পরিপূর্ণ শিক্ষক পাবেন, যা দেশের প্রশ্নবিদ্ধ শিক্ষার মানোন্নয়নে যুগান্তকারী ফল নিয়ে আসবে এবং আলোকিত শিক্ষার্থী গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে।

লেখক : অতিরিক্ত মহাসচিব : বাংলাদেশ শিক্ষক ইউনিয়ন -বিটিইউ

আপনার মুল্যবান মতামত দিন......

comments



স্তন ক্যান্সারের কারন,প্রতিকার ও প্রতিরোধ-আয়েশা সিদ্দিকা শেলী

প্রধান কার্যালয়: শিমুল লজ, ১২/চ/এ/২/৪ (২য় তলা), রোড নং ৪, শেরেবাংলা নগর,শ্যামলী,ঢাকা‌.
বার্তা বিভাগ-01763234375 অথবা 01673974507, ইমেইল- sangbadgallery7@gmail.com

আঞ্চলিক কার্যালয়: বঙ্গবন্ধু সড়ক, আধুনিক সদর হাসপাতাল সংলগ্ন, বাসস্ট্যান্ড, ঠাকুরগাঁও-৫১০০

2012-2016 কপি রাইট আইন অনুযায়ী সংবাদ-গ্যালারি.কম এর কোন সংবাদ ছবি ভিডিও কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া অন্য কোথায় প্রকাশ করা আইনত অপরাধ

Development by: webnewsdesign.com