কোরবানি সামনে জমে উঠছে রাজশাহী পশুহাট

শনিবার, ০৪ আগস্ট ২০১৮ | ১:০৫ অপরাহ্ণ |

কোরবানি সামনে জমে উঠছে রাজশাহী পশুহাট
কোরবানি সামনে জমে উঠছে রাজশাহী পশুহাট

রাজশাহী প্রতিনিধি: ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে জমে উঠতে শুরু করেছে রাজশাহীর পশুহাটগুলো। এবারও কোরবানিতে প্রাধান্য পাবে স্থানীয় খামারে পালিত দেশি জাতের গরু-ছাগল। মূলত তারাই যোগান দেবে চাহিদামতো পশুর।

প্রাণিসম্পদ বিভাগ ও খামারিদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে এবারও রাজশাহীর খামারগুলোতে পর্যাপ্ত পরিমাণে গবাদিপশু লালন-পালন করা হয়েছে। গো-খাদ্যের দাম বেশি থাকায় এবার খামারিদের খরচ একটু বেশি পড়ছে। যারফলে গতবারের তুলনায় এবার গরু-ছাগলের দাম একটু বেশি পড়বে বলে জানান তারা।

webnewsdesign.com

গতবছর রাজশাহীতে চাহিদার চেয়ে কোরবানির পশুর পরিমাণ বেশি ছিল। যে কারণে শেষের দিকে এসে অনেক খামারিকে লোকসান দিয়ে পশু বিক্রি করতে হয়েছে। এরকম বেশকিছু খামারি লোকসানের কারণে এই ব্যবসা ছেড়ে দিয়েছেন। যারা অধিক খরচ করে খামার টিকিয়ে রেখেছেন, তারাও এবার লোকসান কাটিয়ে উঠতে পারবেন কিনা এই দুশ্চিন্তায় রয়েছেন।

বাংলাদেশ ডেইরি ফার্মার অ্যাসোসিয়েশন রাজশাহী জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ও পবার হড়গ্রাম এলাকার পিওর হারভেস্ট বিডি এগ্রো ফার্মের সত্বাধিকারী ডা. তালহা জামিল বলেন, কোরবানির জন্য এবারও রাজশাহীর খামারগুলোতে পর্যাপ্ত পশু রয়েছে। গতবারের চেয়ে এবার গরুর খাবারের দাম বেশি হওয়ায় দাম একটু বেশি। গতবারের মতো এবারও যাতে খামারিদের লোকসান দিতে না হয়, সেজন্য প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়কে ঈদের আগে ভারত থেকে পশু আমদানি নিয়ন্ত্রণ করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

রাজশাহীতে কোরবানির বড় পশুহাটগুলোর মধ্যে রয়েছে নগরীর সিটি হাট, নওহাটা, কাটাখালি, মহিষালবাড়ি, কাকনহাট, মচমইল, কেশরহাট, বানেশ্বর হাট। হাটগুলোর কয়েকটিতে ইতোমধ্যে কোরবানির পশু উঠতে শুরু করেছে। তবে বেচাকেনা সেভাবে শুরু হয়নি। অন্যহাটগুলো জমিয়ে তুলতে হাট ইজারাদাররা প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছেন।

নগরীর সিটিহাটের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট আতিকুর রহমান কালু বলেন, তাদের হাটে বিভিন্ন উপজেলা থেকে স্থানীয় খামারের কুরবানির গরু আসতে শুরু করেছে। ভারতীয় গরু-মহিষের আমদানি কম। ঢাকা-চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন জেলার ব্যবসায়ীরা এসে গরু-মহিষ কিনে নিয়ে যাচ্ছে। গরুর উৎপাদন খরচ বেশি পড়ায় এবার দাম গতবারের তুলনায় (মনপ্রতি) ১ থেকে দেড় হাজার টাকা বেশি।

রাজশাহী জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ড. আখতার হোসেন জানান, গতবছর রাজশাহী জেলায় কোরবানি দেয়া হয়েছে ৩ লাখ ২৫ হাজার ২শ পশু। আর স্থানীয় খামারগুলোতে পশু মজুদ ছিল ৩ লাখ ৫৬ হাজার ৮৩১টি। গতবছর চাহিদার চেয়ে ৩১ হাজার বেশি পশু ছিল। এবার কোরবানির জন্য এখানে কত পশু মজুদ আছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, চলমান জরিপ শেষে ২/৩ দিন পরে সংখ্যাটি জানা যাবে। তবে গতবারের মতো কোরবানি হলে এবারও এখানে স্থানীয় খামারের পশু দিয়েই তা করা যাবে বলে জানান তিনি।

আপনার মুল্যবান মতামত দিন......

comments

প্রধান কার্যালয়: শিমুল লজ, ১২/চ/এ/২/৪ (২য় তলা), রোড নং ৪, শেরেবাংলা নগর,শ্যামলী,ঢাকা‌.
বার্তা বিভাগ-01763234375 অথবা 01673974507, ইমেইল- sangbadgallery7@gmail.com

আঞ্চলিক কার্যালয়: বঙ্গবন্ধু সড়ক, আধুনিক সদর হাসপাতাল সংলগ্ন, বাসস্ট্যান্ড, ঠাকুরগাঁও-৫১০০

2012-2016 কপি রাইট আইন অনুযায়ী সংবাদ-গ্যালারি.কম এর কোন সংবাদ ছবি ভিডিও কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া অন্য কোথায় প্রকাশ করা আইনত অপরাধ

Development by: webnewsdesign.com