অধিক দাম পাওয়ার আশাই ভূট্টার আবাদ বেড়েছে পঞ্চগড়ে

গমের বদলে ভূট্টার আবাদ বাড়ছে- উত্তরবঙ্গ

বুধবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৮ | ১২:৪৪ অপরাহ্ণ |

গমের বদলে ভূট্টার আবাদ বাড়ছে- উত্তরবঙ্গ
ছবি: অনলাইন

পঞ্চগড়সহ উত্তরাঞ্চলে মাটি ও আবহাওয়া গম আবাদের জন্য বেশ উপযোগী হলেও পঞ্চগড়ে প্রতি বছর কমে যাচ্ছে অন্যতম অর্থকরি ফসল গমের আবাদ। অধিক ফলন এবং দাম ভালো পাওয়ায় গমের পরিবর্তে এখন ভুট্টা চাষে আগ্রহ বাড়ছে কৃষকদের।

গত মৌসূমের তুলনায় চলতি মৌসূমে জেলায় ছয় হাজার হেক্টর জমিতে গমের আবাদ কমেছে। আর গত মৌসূমের তুলনায় বর্তমান মৌসূমে চার হাজার হোক্টর বেশি জমিতে ভুট্টা চাষ হয়েছে। একই খরচে গমের চেয়ে ভুট্টার দ্বিগুণ উৎপাদন হওয়ায় গম চাষের ওইসব জমিতে ভুট্রা চাষে ঝুঁকছেন স্থানীয় কৃষকরা। ভুট্টা আবাদ করে কৃষকেরা দিন দিন বেশি লাভবান হওয়ায় আগামী মৌসূমে গম আবাদী জমির পরিমান আরও কমে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

webnewsdesign.com

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সুত্রে জানান যায়, পঞ্চগড়ের মোট পাঁচটি উপজেলায় ২০১৫-২০১৬ অর্থবছরে গম চাষ হয়েছিল ২৫ হাজার ৮৯০ হেক্টর জমিতে। আর ভুট্টা চাষ হয়েছিল ১৫ হাজার ৩০০ হেক্টর জমিতে।

২০১৬-২০১৭ অর্থবছরে গম চাষ হয়েছিল ২৬ হাজার ৪৩০ হেক্টর জমিতে আর ভুট্টা চাষ হয়েছিল ১৭ হাজার ৭৫০ হেক্টর জমিতে।

চলতি ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরে জেলায় গম চাষের লক্ষমাত্রা ২৫ হাজার ৭০৭ হেক্টর হলেও চাষ হয়েছে ২০ হাজার হেক্টর জমিতে। অপরদিকে ভুট্টা চাষের লক্ষমাত্রা ১৭ হাজার ৭৭০ হেক্টর ছাড়িয়ে চাষ হয়েছে ২২ হাজার ৬১০ হেক্টর জমিতে।

এদিকে সরেজমিনে কৃষকদের কথা বলে জানা যায়, বর্তমান সময়ে ভূট্টার আবাদে ভালো ফলনের সাথে উপযুক্ত দাম পাচ্ছেন কৃষকরা। পাশাপাশি উৎপাদনের তুলনায় গম আবাদে খরচ এবং পরিশ্রম বেশি লাগে। এছাড়া অনেক সময় ভালো মানের গম বীজ পেতেও সমস্যায় পড়তে হয় কৃষকদের। এসব কারণেই মুলত জেলায় প্রতি বছর গমের আবাদ কমে যাচ্ছে। গম আবাদের উপযোগী জমিতে ভুট্রা চাষ করছেন কৃষকরা। এই মৌসূমে অন্য যে কোন ফসলের তুলনায় ভূট্টার ফলন বেশি হয়। জেলার পঞ্চগড় সদর, তেঁতুলিয়া ও আটোয়ারী উপজেলার বিস্তৃর্ন এলাকার যে সকল জমিতে এক সময়ে গমের আবাদ করা হতো সেসব জমি এখন ভুট্টা আবাদে ভরে গেছে।

সদর উপজেলার ডুডুমারী এলাকার কৃষক রশিদুল ইসলাম বলেন, ‘এবার আমি দুই একর জমিতে ভুট্টা চাষ করেছি। আমরা যেসব জমিতে এক সময় গম আবাদ করতাম সেই জমিগুলোতে এখন ভুট্টার আবাদ করছি। উৎপাদন খরচ একই হলেও গমের চেয়েও ভূট্টার ফলন দ্বিগুণ পাওয়া যায়। দিন দিন বাজারে ভূট্টার চাহিদাও বাড়ছে। এ কারণে আমরা উপযুক্ত দামও পাচ্ছি।’

জেলার সদর উপজেলার হাফিজাবাদ ইউনিয়নের মালিপাড়া এলাকার কৃষক শহিদুল ইসলাম মানিক বলেন, ‘আমাদের এইসব জমিতে প্রতি বিঘায় প্রায় ৩৫ থেকে ৪০ মন পর্যন্ত ভুট্রা উৎপাদন করা যায়। প্রতি মন শুকনা ভুট্টা বাজারে বিক্রি হয় সাড়ে ৬০০ থেকে ৭০০ টাকা দরে। অপর দিকে  প্রতি বিঘা জমিতে গম উৎপাদন হয় ১২ থেকে ১৫ মন। বাজারে প্রতি মন গম বিক্রি হচ্ছে ৭০০ থেকে ৭৫০ টাকা দরে। এই লাভ-লোকসানের কথা বিবেচনা করে আমরা এখন গমের বদলে ভুট্টার আবাদ বেশি করছি।’

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মো. শামছুল হক বলেন, ‘পঞ্চগড়ের মাটি ও আবহাওয়া গম ও ভুট্টার আবাদের জন্য বেশ উপযোগী। এখানে দীর্ঘদিন ধরেই গমের আবাদ করা হয়। তবে গত বারের তুলনায় এবার গমের আবাদ কমে গেলেও ভুট্টার আবাদ বৃদ্ধি পেয়েছে। ভূট্টার ফলন গমের চেয়ে প্রায় দ্বিগুন হয়। উপযুক্ত দামও পাচ্ছেন কৃষকরা। এছাড়া ভুট্টার পাশাপাশি জেলায় বোরো ধান ও উন্নত জাতের টমেটো আবাদ করেও কৃষকরা লাভবান হচ্ছেন। মুলত এসব কারণেই জেলায় গমের আবাদ কিছুটা কমেছে।’

আপনার মুল্যবান মতামত দিন......

comments

ঠাকুরগাঁওয়ে ভূমিহীনদের ভূমি ও গৃহ প্রদান উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলন…

প্রধান কার্যালয়: শিমুল লজ, ১২/চ/এ/২/৪ (২য় তলা), রোড নং ৪, শেরেবাংলা নগর,শ্যামলী,ঢাকা‌.
বার্তা বিভাগ-01763234375 অথবা 01673974507, ইমেইল- sangbadgallery7@gmail.com

আঞ্চলিক কার্যালয়: বঙ্গবন্ধু সড়ক, আধুনিক সদর হাসপাতাল সংলগ্ন, বাসস্ট্যান্ড, ঠাকুরগাঁও-৫১০০

2012-2016 কপি রাইট আইন অনুযায়ী সংবাদ-গ্যালারি.কম এর কোন সংবাদ ছবি ভিডিও কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া অন্য কোথায় প্রকাশ করা আইনত অপরাধ

Development by: webnewsdesign.com