ভূমি মন্ত্রণালয়ের গাফিলতির অভিযোগ

জমি বরাদ্দ পাচ্ছেন না স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নৃত্যশিল্পী বজলুর রহমান

বৃহস্পতিবার, ৩১ মে ২০১৮ | ১:১৩ পূর্বাহ্ণ |

জমি বরাদ্দ পাচ্ছেন না স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নৃত্যশিল্পী বজলুর রহমান
নৃত্যশিল্পী বজলুর রহমান

রাজশাহী প্রতিনিধি: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনার পরও স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নৃত্যশিল্পী বজলুর রহমান বাদলের নামে ভূমি মন্ত্রণালয় থেকে জমি বরাদ্দ দেয়া হয়নি। জমি বরাদ্দ দেয়ার বিষয়ে রাজশাহী জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বারবার তাগাদা দেয়া সত্ত্বেও তা সম্পন্ন করেনি ভূমি মন্ত্রণালয়। বরং জেলা প্রশাসন থেকে পাঠানো চিঠির প্রতিউত্তরে অর্পিত সম্পত্তি স্থায়ী বা দীর্ঘ মেয়াদি বন্দোবস্ত প্রদানের আইনগত কোনো সুযোগ নেই মর্মে তা ফেরত পাঠানো হয়েছে। এই নিয়ে স্থানীয় শিল্পী-কলাকুশলী ও সংস্কৃতিকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ তৈরি হয়েছে।
যদিও জেলা প্রশাসন থেকে বলা হচ্ছে, যেহেতু এটা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা। সেহেতু ভূমি মন্ত্রণালয় চাইলেই অর্পিত সম্পত্তি খাস জমিতে রূপান্তর করে স্থায়ী বন্দোবস্ত করে দিতে পারেন। অথচ ভূমি মন্ত্রণালয়ের কর্তাব্যক্তিরা প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে পাঠানো নির্দেশনাও অমান্য করছেন।
জেলা প্রশাসন থেকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ও ভূমি মন্ত্রণালয়ে পাঠানো এক চিঠি থেকে জানা যায়, বজলুর রহমান বাদল একজন প্রথিতযশা নৃত্যশিল্পী। নৃত্যজগতে অসামান্য অবদানের জন্য তিনি ২০১৭ সালে স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত হন। স্বাধীনতা পুরস্কার গ্রহণকালে তিনি প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে রাজশাহী শহরে স্থায়ীভাবে বসবাসের জন্য একখ- জমি প্রদানের আবেদন করেন। সেই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব রাজশাহীর জেলা প্রশাসককে টেলিফোনে তার নামে লিজকৃত ভিপি জায়গা স্থায়ীভাবে বরাদ্দ প্রদানের বিষয়ে উদ্যোগ গ্রহণের নির্দেশনা দেন। বজলুর রহমান বাদলকে ১৯৮৮ সালে তৎকালীন জেলা প্রশাসক নগরীর সাগরপাড়া এলাকায় ০.০৩৯৪ একর ভিপি জমি বাৎসরিক ভিত্তিতে লিজ প্রদান করেন। তখন থেকেই তিনি প্রতি বছর ওই জমির লিজমানি পরিশোধ করে দখলে রেখেছেন। এইজন্য ওই ভিপি জমিটিই স্থায়ীভাবে দীর্ঘমেয়াদি ইজারা গ্রহণ করে স্থায়ী অবকাঠামো নির্মাণের আবেদন করেন তিনি। সেই আবেদনপত্রটিই ভূমি মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়। তার প্রতিউত্তরে ভূমি মন্ত্রণালয় থেকে অর্পিত সম্পত্তি চিরস্থায়ী-দীর্ঘমেয়াদি বন্দোবস্ত প্রদান বিষয়ে কোনো বিধিমালা-নীতিমালা প্রণীত হয়নি বলে তা ফেরত পাঠানো হয়।
রাজশাহীর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) সাবেত আলী জানান, যেহেতু এটা প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা সেহেতু ভূমি মন্ত্রণালয় চাইলেই জমিটি ভূমি ব্যবস্থাপনা ম্যানুয়ালের ২৭৩ ও ২৭৫ অনুচ্ছেদের আলোকে খাস জমিতে রূপান্তর করে চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত করে দিতে পারে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে জেলা প্রশাসনকে এ বিষয়ে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। জেলা প্রশাসন থেকে ভূমি মন্ত্রণালয়কে চিঠির মাধ্যমে বিষয়টি জানানো হয়েছে।
নৃত্যশিল্পী বজলুর রহমান বাদলও চান সাগরপাড়া মৌজার ওই জমিটি প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী বরাদ্দ পেতে। এইজন্য সচেতন সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। বর্তমানে নগরীর শিরোইলে একটি ভাড়া বাসায় পরিবার-পরিজন নিয়ে থাকছেন তিনি। তিনি দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, কেউ যেন শিল্পী না হয়। শিল্পী হলেও সে যেন আগে তার থাকার ও খাওয়ার জায়গাটি নিশ্চিত করে। সারাজীবন শিল্পের জন্য জীবন উৎসর্গ করেও শেষ বয়সে এসে ভাড়া বাসায় থাকতে হচ্ছে। বাসা ভাড়ার সাত হাজার টাকা প্রতি মাসে সংগ্রহ করতে তাকে নানাবিধ ভোগান্তির মধ্যে যেতে হয়।
প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা সত্ত্বেও স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত এমন একজন গুণি মানুষের জন্য জমি বরাদ্দ না দেয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন নগরীর বিশিষ্ট ব্যক্তিরাও। তারা দ্রুত তার নামে জমি বরাদ্দের আহ্বান জানান।
লেখক-গবেষক অধ্যাপক তসিকুল ইসলাম রাজা মনে করেন, বজলুর রহমান বাদল শুধু রাজশাহীর মানুষ না। তিনি জাতীয় পর্যায়ের একজন মানুষ। তার মতো গুণি শিল্পী নেই। এইজন্য তিনি বাংলাদেশের সর্বোচ্চ পুরস্কার স্বাধীনতা পদকে ভূষিত হয়েছেন। এছাড়া নৃত্যকলায় তার অবদানও অবিস্মরণীয়। তিনি নৃত্যকে উচ্চাসনে নিয়ে গেছেন। নাটক ও নৃত্যের জন্য সারাজীবন দারিদ্র্যকে মেনে নিয়েছেন। তবুও শিল্প চর্চা থেকে পিছপা হননি। সারাজীবন মানুষকে বিনোদন দিয়ে গেছেন। এমন একজন মানুষের শেষ জীবনেও নিজ বসবাসের জন্য বাড়ি থাকবে না, তা হয় না। তারপর আবার যেখানে প্রধানমন্ত্রী নিজে তাকে জমি প্রদানের নির্দেশনা দিয়েছেন। এইজন্য তার নামে স্থায়ীভাবে জমি প্রদানের দ্রুত আহ্বান জানান তিনি।
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও নাট্যকার মলয় ভৌমিক জানান, বজলুর রহমান বাদল একজন জাতির শ্রেষ্ঠ মানুষ। বাংলাদেশের ¤্রষ্ঠে পুরস্কার স্বাধীনতা পদকে ভূষিত হয়েছেন তিনি। এমন একজন মানুষের নিজের বসবাসের জন্য জায়গা থাকবে না তা হতে পারে না। এইজন্য দ্রুত তার নামে জায়গা বরাদ্দ দেয়া উচিত। তবে সরকারিভাবে তার জন্য যেটা ভালো হবে সেই ধরনের জায়গা তাকে দেয়া উচিত। যাতে পরবর্তীতে কোনো ধরনের বিড়ম্বনার শিকার না হন তিনি।
তবে এ বিষয়ে বক্তব্য নেয়ার জন্য ভূমি সচিবের সঙ্গে টেলিফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

আপনার মুল্যবান মতামত দিন......

comments

webnewsdesign.com
জিংক ধান বিস্তারে কৃষি অফিসারদের দক্ষতা উন্নয়নমূলক প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত…

প্রধান কার্যালয়: শিমুল লজ, ১২/চ/এ/২/৪ (২য় তলা), রোড নং ৪, শেরেবাংলা নগর,শ্যামলী,ঢাকা‌.
বার্তা বিভাগ-01763234375 অথবা 01673974507, ইমেইল- sangbadgallery7@gmail.com

আঞ্চলিক কার্যালয়: বঙ্গবন্ধু সড়ক, আধুনিক সদর হাসপাতাল সংলগ্ন, বাসস্ট্যান্ড, ঠাকুরগাঁও-৫১০০

2012-2016 কপি রাইট আইন অনুযায়ী সংবাদ-গ্যালারি.কম এর কোন সংবাদ ছবি ভিডিও কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া অন্য কোথায় প্রকাশ করা আইনত অপরাধ

Development by: webnewsdesign.com