যশোরের

ঝিকরগাছায় প্রসূতির মৃত্যু, ক্লিনিক মালিক শরিফুল এর পিছনে আছে শক্তিশালি হাত -মানবাধিকার কল্যান ট্র্যষ্টের নাম ভাঙ্গিয়ে বিভিন্ন স্থানে তদবির

মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ১:৩০ অপরাহ্ণ |

ঝিকরগাছায় প্রসূতির মৃত্যু, ক্লিনিক মালিক শরিফুল এর পিছনে আছে শক্তিশালি হাত -মানবাধিকার কল্যান ট্র্যষ্টের নাম ভাঙ্গিয়ে বিভিন্ন স্থানে তদবির
প্রতিনিধির পাঠানো তথ্য ও ছবিতে ডেস্ক রিপোর্ট

যশোরের ঝিকরগাছায় প্রসুতি মৃত্যুর ঘটনায় ক্লিনিক মালিক শরিফুল ইসলাম লাপাত্তা থেকে মানবাধিকার কল্যান ট্র্যষ্টের নাম ভাঙ্গিয়ে বিভিন্ন স্থানে তদবির করে বেড়াচ্ছে। জানতে পেরে সোমবার ঝিকরগাছা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আব্দুর রাজ্জাক ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছেন এবং ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

সাধারন মানুষের প্রশ্ন গত ৬ ডিসেম্বর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তানজিলা আক্তারের নেতৃত্বে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাফিজুল হক, সিভিল সার্জনের প্রতিনিধি ডাঃ মীর আবু মাউদ ঝিকরগাছার উক্ত সালেহা ক্লিনিকে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানে সালেহা ক্লিনিকের প্রোপাইটর শরিফুল ইসলাম ডাক্তার না হয়ে ডাক্তারী প্যাড ব্যাবহার, রোগী দেখা, ক্লিনিকের ফ্রিজে ব্লাডরাখা, একই ফ্রিজে প্রয়োজনীয় ঔষদের সাথে রান্না তরকারী (খাবার) রাখা এবং প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখাতে ব্যার্থ হওয়ায় ভোক্তা অধিকার আইন ২০০৯ সালের ৫২ ধারা ও ১৮৮ দন্ডবিধি মোতাবেক সালেহা ক্লিনিকে সীলগালা করে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করে। এছাড়া গত ২ বছরপূর্বে লাউজানী গ্রামের আলম হোসেনের প্রসুতি স্ত্রীও ওই ক্লিনিকে মারা গিয়েছিলো বলে জানাগেছে। সেই ক্লিনিক আবারো কিভাবে চালু হলো।


অভিযোগ রয়েছে, ম্যাজিস্ট্রেট কর্তৃক (সীলগালা) বন্ধ ক্লিনিক চালু করার পিছনে মানবাধিকার কল্যান ট্র্যষ্টের এক ব্যক্তির হাত রয়েছে। তিনি নাকি বর্তমানে ওই ক্লিনিকের (মালিকানা) অর্ধেক শেয়ারে রয়েছেন বলে রবিবার মোবাইল ফোনে শরিফুল জানিয়েছিলেন।

জানাগেছে, গত শুক্রবার দুপুরে বৈশাখী আক্তার বিথি (৩০) কে সন্তান প্রসবের জন্য ঝিকরগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে পরিবারের সদস্যরা। নরমালে ডেলিভারী হতে দেরি হওয়ায় সন্ধ্যায় ওই রোগীকে স্থানীয় সালেহা কিনিকের স্বত্বাধিকারী শরিফুল ইসলামের যোগসাজশে তার নিজস্ব ক্লিনিকে ভর্তি করে। বাচ্চা প্রসবের পর অতিরিক্ত রক্তক্ষরনে ক্লিনিকে ওই প্রসুতির মৃত্যু হয়। ক্লিনিক ভাংচুরের ভয়ে সুচতুর শরিফুল ইসলাম মৃত প্রসুতিকে দ্রুত একটি প্রাইভেটকারে উঠিয়ে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলেও জরুরী বিভাগের সামনে থেকে পালিয়ে যায়। শিশুটি মারাত্বক অসুস্থ থাকায় বর্তমানে যশোর জেনারেল হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এ ব্যাপারে ঝিকরগাছা থানার সেকেন্ড অফিসার এস আই নজরুল ইসলাম জানিয়েছেন, ঘটনার পর ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের বাড়িতে দূ’দফা যাওয়া হয়েছে। কিন্তু তারা এখনো অভিযোগ করেননি। তারপরও অভিযুক্ত শরিফুলকে আটকের চেষ্ট করা হচ্ছে। তবে লাশ উঠানোর ভয়ে পরিবার থেকে থানায় অভিযোগ করা হয়নি বলে প্রসুতির ভাই ডলার হোসেন ও মহিলা নেত্রী (সমাজকর্মী) নাসরিন খাঁন বিথি জানিয়েছেন।

আপনার মুল্যবান মতামত দিন......

comments



যোগ্যতাই যখন বড় অযোগ্যতা

প্রধান কার্যালয়ঃ বঙ্গবন্ধু সড়ক, আধুনিক সদর হাসপাতাল সংলগ্ন, বাসস্ট্যান্ড, ঠাকুরগাঁও-৫১০০
বার্তা বিভাগ-01763234375 অথবা 01673974507, ইমেইল- sangbadgallery7@gmail.com

2012-2016 কপি রাইট আইন অনুযায়ী সংবাদ-গ্যালারি.কম এর কোন সংবাদ ছবি ভিডিও কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া অন্য কোথায় প্রকাশ করা আইনত অপরাধ

Development by: webnewsdesign.com