পঞ্চগড়ে মদ কিনছে শিক্ষার্থী ও উঠতি বয়সের যুবকেরা…

মঙ্গলবার, ০৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৮:১৩ অপরাহ্ণ |

পঞ্চগড়ে মদ কিনছে শিক্ষার্থী ও উঠতি বয়সের যুবকেরা…
প্রতিনিধির পাঠানো তথ্য ও ছবিতে ডেক্স রিপোর্ট/সংবাদ গ্যালারি

পঞ্চগড় শহরের প্রাণকেন্দ্র পৌরসভা সংলগ্ন করতোয়া নদীর তীরে পৌর খালপাড়া এলাকায় অনুমোদিত দেশীয় মদের দোকানে লাইসেন্সধারী মাদকসেবীদের কাছে মদ বিক্রির কথা থাকলেও নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে শিক্ষার্থী ও উঠতে বয়সের যুবকদের কাছে দেদারছে বিক্রি করা হচ্ছে। চাহিদা মত দেওয়া হচ্ছে যে কোন ব্যক্তিকে। বেশিরভাগ ক্রেতাই নেশাগ্রস্ত, নেশা করতে তারা মদ কেনেন।

স্থানীয়দের দাবি, অতি দ্রুত লাইসেন্সের আড়ালে এই অবৈধ কারবার বন্ধ না করলে দিন দিন মাদকাসক্ত হয়ে পড়বে পঞ্চগড় এলাকার যুব সমাজ। তবে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর বলছে দেশীয় মদের দোকানে কোন অনিয়ম হলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

webnewsdesign.com

জানা গেছে, ১৯৭৮ সালে লাইসেন্স নিয়ে অর্জুন কুমার ভৌমিক এর পিতা এই মদের দোকানটি চালু করেন। জেলায় মোট দেশী মদের লাইসেন্সধারী মুসলমান ৪৩ ও অন্যান্য ২০৭ জন, মোট লাইসেন্স ধারী ক্রেতার সংখ্যা মাত্র ২৫০ জন। দোকানটি প্র‌তিদিন সকাল ৮টা থেকে দুপুর ২টা,বিকেল ৫টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত চলে।

জনপ্রতি মাসে সাড়ে আট লিটার মদ বরাদ্দ দেয়ার নিয়ম রয়েছে। গত আগস্ট মাস জুড়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর দুটি নিয়মিত মামলা ও ২৯ জনকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। এসময় ১ কেজি ৫৮০ গ্রাম গাঁজা ও ৪৬৩ পিচ এ্যাম্পুল ইনজেকশন জব্দ করা হয়।

এদিকে জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয় থেকে জানা যায় আগস্ট মাসে পঞ্চগড় জেলায় মাদকের ১৫টি মামলা রেকর্ডভুক্ত হয়েছে এছাড়া গাজা ৭ কেজি, মদ ৯ লিটার, ইনজেকশন ১৬০ পিচ, হিরোইন ১০ গ্রাম জব্দ করা হয়েছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উঠতি বয়সী যুবক, শিক্ষার্থীসহ নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ এখানে মদ কিনতে আসে। লাইসেন্সধারীদের কাছে মদ বিক্রির কথা থাকলেও এখানে নিয়ম মেনে মদ বিক্রি করেন না বিক্রেতা। লাইসেন্স ছাড়া অবৈধ ক্রেতাদের কাছে যে মদ বিক্রি হচ্ছে সেই মদের যোগানদাতা কে, কোন উৎস হতে এই মদ সরবরাহ করা হচ্ছে, তার সদুত্তর পাওয়া যায়নি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দুই ব্যাক্তি জানান, তাদের কাছে কোন লাইসেন্স নাই। এক লিটার মদ ৪০০ টাকা দিয়ে কিনেন তারা। টাকা দিলে যে কাউকে মদ দেয়া হয়। কোনরকম বাধা বিঘ্ন ছাড়াই তারা মদ কেনেন।

মদের দোকানের প্রোপাইটর অর্জুন কুমার ভৌমিক নিজেকে জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সদস্য দাবী করে বলেন, লাইসেন্সধারী মানুষের কাছে ছাড়া এই দেশীয় মদ অন্য কারো কাছে বিক্রি করা হয় না। আমার বৈধ মদের দোকানের আশ-পাশে অন্যান্য মাদক ও পাওয়া যায়। আমি জেলা প্রশাসনকে অবহিত করেছি।

পঞ্চগড় সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল লতিফ মিঞা বলেন, সরকার অনুমোদিত দোকানে মদ বিক্রি চলছে। সেখানে কে মদ কিনছে বা খাচ্ছে তা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর দেখবে।

পঞ্চগড় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পরিদর্শক জান্নাতুন নুরি বলেন, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর এর অনুমতি নেই এমন কোন ব্যক্তির কাছে মদ বিক্রয় করা যাবে না। দেশীয় মদের দোকানে যদি নিয়মের বাইরে কিছু হয়, তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপনার মুল্যবান মতামত দিন......

comments

অভিনব পদ্ধতিতে পাচার কালে ১৫টি মোবাইল উদ্ধার…

প্রধান কার্যালয়: শিমুল লজ, ১২/চ/এ/২/৪ (২য় তলা), রোড নং ৪, শেরেবাংলা নগর,শ্যামলী,ঢাকা‌.
বার্তা বিভাগ-01763234375 অথবা 01673974507, ইমেইল- sangbadgallery7@gmail.com

আঞ্চলিক কার্যালয়: বঙ্গবন্ধু সড়ক, আধুনিক সদর হাসপাতাল সংলগ্ন, বাসস্ট্যান্ড, ঠাকুরগাঁও-৫১০০

2012-2016 কপি রাইট আইন অনুযায়ী সংবাদ-গ্যালারি.কম এর কোন সংবাদ ছবি ভিডিও কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া অন্য কোথায় প্রকাশ করা আইনত অপরাধ

Development by: webnewsdesign.com