ফুফুর হাসুয়ার আঘাতে খুন হয় তামিম

সোমবার, ৩০ এপ্রিল ২০১৮ | ৮:৪০ অপরাহ্ণ |

ফুফুর হাসুয়ার আঘাতে খুন হয় তামিম

রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে হাসুয়ার আঘাতে মৃত্যু হয়েছিল শিশু তামিমের বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন ফুফু সোনিয়া খাতুন। হত্যাকা-ের ঘটনায় জড়িত সন্দেহে দাদিসহ দুই ফুফুকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে আসে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশের কাছে হত্যার বিষয়টি সোনিয়া স্বীকার করেছে বলে সোমবার এক সংবাদ সম্মেলন করে জানান পুলিশ সুপার (এসপি) মো. শহীদুল্লাহ।

পুলিশ সুপার জানান, রোববার রাতে জিজ্ঞাসাবাদের সময় শিশু তামিমের ছোট ফুফু সোনিয়া খাতুন (১৪) হত্যার কথা স্বীকার করেছে। ঘটনার পর বিষয়টি অন্যদিকে ধাবিত করতে সোনিয়া তার বোন রাবেয়া খাতুন(২২) ও মা নার্গিস বেগমের সহায়তা নেয়। রাতে শিশুর লাশ পাওয়া যায় একটি মাচানের নিচে। পরদিন শিশু তামিমের বাবা বাদী হয়ে গোদাগাড়ী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে ঘটনাস্থালে গিয়ে সন্দেহজনক ভাবে নিহত তামিমের দুই ফুফু ও দাদীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে আসা হয়। রোববার রাতে সোনিয়া বিষয়টি স্বীকার করে।

webnewsdesign.com

সোমবার সকালে সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার মো. শহীদুল্লাহ সাংবাদিকদের জানান, সোনিয়া তার স্বীকারক্তিতে জানায় যে ২৬ এপ্রিল সকাল ১০ টার দিকে শিশু তামিম ও সোনিয়া বাড়ির পাশেই ছিল।

অসাবধানতা বশত হাসুয়ার ডাট (গোড়া) খুলে গিয়ে তামিমের মাথার তালুতে ঢুকে যায়। দুই থেকে তিন মিনিটের মধ্যেই শিশু তামিমের মৃত্যু হয়। ভীত সন্তোস্ত হয়ে সোনিয়া তার মা নার্গিস বেগম ও বড় বোন রাবেয়া খাতুনকে বিষয়টি জানান। সে সময়ে শিশু তামিমের বাবা ও দাদা বাজারে ছিলেন এবং মা ঘরে ঘুমাচ্ছিলেন। এই সুবাদে দাদি নার্গিস বেগম ও তার দুই মেয়ে তামিমের লাশ ওড়না দিয়ে পেঁচিয়ে একটি মাচার নিচে লুকিয়ে রাখেন।

পরে তামিমের সন্ধানে তার মা বের হলে বিষয়টি অন্যদিকে প্রবাহিত করতে দাদী নার্গিস বেগম অপহরণ করা হতে পারে বলে জানান। এরপর এলাকা জুড়ে নিখোঁজ তামিমের সন্ধানে মাইকিং করা হয়। পরে রাতে ফুফু রাবেয়ার মাধ্যমেই বের হয়ে আসে লাশের সন্ধান।

এ ঘটনার পরদিন ২৭ এপ্রিল তামিমের পিতা রাসেল গোদাগাড়ী থানায় অজ্ঞাত নামা উল্লেখ করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে বিষয়টির তদন্তে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পুলিশ। সন্দেহজনকভাবে দাদি নার্গিস, তার দুই মেয়ে রাবেয়া ও সোনিয়াকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে আসে পুলিশ। জিজ্ঞাবাদে ফুফু সোনিয়া হত্যাকা-ের বিষয়টি স্বীকার করেন এবং মা ও বোনের সহযোগীতার কথা বলেন।

পুলিশ সুপার জানান, এ বিষয়ে একটি মামলা হয়েছে আর আসামি পুরো বিষয়টি স্বীকার করেছে তাই তাদের এখন গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে হাজির করা হবে। তবে এটি দুর্ঘটনাজনিত কারণে হয়েছে নাকি ইচ্ছেকৃতভাবে তার তদন্ত অব্যাহত আছে।

আপনার মুল্যবান মতামত দিন......

comments

ঠাকুরগাঁওয়ে ভূমিহীনদের ভূমি ও গৃহ প্রদান উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলন…

প্রধান কার্যালয়: শিমুল লজ, ১২/চ/এ/২/৪ (২য় তলা), রোড নং ৪, শেরেবাংলা নগর,শ্যামলী,ঢাকা‌.
বার্তা বিভাগ-01763234375 অথবা 01673974507, ইমেইল- sangbadgallery7@gmail.com

আঞ্চলিক কার্যালয়: বঙ্গবন্ধু সড়ক, আধুনিক সদর হাসপাতাল সংলগ্ন, বাসস্ট্যান্ড, ঠাকুরগাঁও-৫১০০

2012-2016 কপি রাইট আইন অনুযায়ী সংবাদ-গ্যালারি.কম এর কোন সংবাদ ছবি ভিডিও কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া অন্য কোথায় প্রকাশ করা আইনত অপরাধ

Development by: webnewsdesign.com