বাংলাদেশ নিজেই পারবে যুদ্ধ জাহাত তৈরি করতে : প্রধানমন্ত্রী

সোমবার, ২৫ ডিসেম্বর ২০১৭ | ১০:৪৬ পূর্বাহ্ণ |

বাংলাদেশ নিজেই পারবে যুদ্ধ জাহাত তৈরি করতে : প্রধানমন্ত্রী
নেভাল একাডেমিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

বাংলাদেশের নৌ বাহিনী ধীরে ধীরে ‘বায়ার বাহিনী’ থেকে ‘বিল্ডার বাহিনী’তে পরিণত হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, আমরা নিজেরাই পারব যুদ্ধ জাহাজ তৈরি করতে, আমরা নিজেরা এটা রফতানিও করতে পারব।

রোববার সকালে চট্টগ্রামে বাংলাদেশ নেভাল একাডেমিকে নবীন ক্যাডেটদের কমিশন উপলক্ষে আয়োজিত রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজে ভাষণ দিতে গিয়ে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

webnewsdesign.com

অনুষ্ঠানে ২৯২ জন মেইকশিফট ম্যান ও ১২ জন ডিরেক্ট এন্ট্রি অফিসার কমিশন পান। তারা প্রধানমন্ত্রীকে সালাম জানান।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের নৌ বাহিনীকে আরো আধুনিকায়ন করা ও যুগোপযোগী করার জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ আমরা নিয়েছি। এই বাহিনীর কাঠামোগত উন্নয়নের লক্ষ্যে পটুয়াখালীতে এভিয়েশন সুবিধা সম্বলিত নৌ বাহিনীর সর্ববৃহৎ নৌ ঘাঁটি এবং ঢাকায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব নৌ ঘাঁটি নির্মাণের কাজ চলছে।
প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, সাবমেরিনের সুষ্ঠু পরিচর্যা, রক্ষণাবেক্ষণ এবং জেটি সুবিধা প্রদানের জন্য কুতুবদিয়ায় আমরা একটি সাবমেরিন ঘাঁটি নির্মাণের কাজও এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি।

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে সন্দ্বীপ চ্যানেলে জাহাজের সুবিধা সম্বলিত ফ্লিপ সদরদফতরের নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। এর ফলে সমুদ্র এলাকায় সার্বিক নিরাপত্তা আরো জোরদার হবে বলে আমি বিশ্বাস করি।

কমিশন প্রাপ্তদের মধ্যে ২১ জন নারী কর্মকর্তা। একে খুশি হওয়ার কথা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এটা আমাদের দেশে নারীর ক্ষমতায়নে একটা বিরাট দৃষ্টান্ত।

চট্টগ্রাম ড্রাইডক লিমিটেডে আধুনিক ফ্রিগেট তৈরির কাজ এগিয়ে চলার কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ধীরে ধীরে বাংলাদেশ নৌ বাহিনীকে ‘বায়ার নৌ বাহিনী’ থেকে ‘বিল্ডার নৌ বাহিনী’তে পরিণত করতে সক্ষম হবো।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান একটি শক্তিশালী নৌ বাহিনী গঠন করতে চেয়েছিলেন জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ১৯৬৬ সালে ছয় দফা প্রস্তাবে পাকিস্তানের নৌ বাহিনীর সদরদপ্তর চট্টগ্রামে করার কথা বলা হয়েছিল।

কিন্তু পাকিস্তানি শাসক গোষ্ঠী তা করেনি। এখন বাংলাদেশ একটি স্বাধীন দেশ, আর আমাদের নৌ বাহিনীকে ধীরে ধীরে আধুনিকায়ন করা হচ্ছে।

নৌ বাহিনীর প্রশিক্ষণের জন্য আধুনিক একাডেমি কমপ্লেক্স নির্মাণের কাজ প্রায় শেষের পথে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, এই কমপ্লেক্স চালু হলে এখানে আরও বেশি সংখ্যক প্রশিক্ষণার্থীকে আরও মানসম্পন্ন প্রশিক্ষণ দেয়া যাবে।

রোহিঙ্গাদেরকে ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারের সঙ্গে করা চুক্তির বিষয়টিও তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তিনি আশা করছেন দ্রুত তাদেরকে নিজ দেশে ফিরিয়ে দেয়ার কাজ শুরু হবে।

এর আগে নবীন ক্যাডেটদের মধ্যে প্রশিক্ষণে কৃতিত্বপূর্ণ ফলাফলের জন্য পুরস্কৃত করেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রশিক্ষণে প্রথম স্থান অর্জনকারী নাসিমুল আলমকে বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিন ব্যাচ দেয়া হয়। দ্বিতীয় স্থান অর্জন করে নৌ প্রধান স্বর্ণপদক পান সীমান্ত নদী আকাশ। আর তৃতীয় স্থান অর্জন করে সোর্ড অব অনার পান সোহানুর রহমান।

বিকেল সাড়ে ৩টা পর্যন্ত নেভাল একাডেমির বিভিন্ন কর্মসূচি রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর।

এরপর বিকেলে তিনি সদ্য প্রয়াত চট্টগ্রামের বর্ষিয়ান আওয়ামী লীগ নেতা এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর বাসভবনে যাবেন। সেখানে তিনি মহিউদ্দিনের কবর জিয়ারত করবেন এবং তার পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানাবেন। বিকেলেই তার ঢাকায় ফেরার কথা রয়েছে।

আপনার মুল্যবান মতামত দিন......

comments

প্রধান কার্যালয়: শিমুল লজ, ১২/চ/এ/২/৪ (২য় তলা), রোড নং ৪, শেরেবাংলা নগর,শ্যামলী,ঢাকা‌.
বার্তা বিভাগ-01763234375 অথবা 01673974507, ইমেইল- sangbadgallery7@gmail.com

আঞ্চলিক কার্যালয়: বঙ্গবন্ধু সড়ক, আধুনিক সদর হাসপাতাল সংলগ্ন, বাসস্ট্যান্ড, ঠাকুরগাঁও-৫১০০

2012-2016 কপি রাইট আইন অনুযায়ী সংবাদ-গ্যালারি.কম এর কোন সংবাদ ছবি ভিডিও কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া অন্য কোথায় প্রকাশ করা আইনত অপরাধ

Development by: webnewsdesign.com