উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নানান অভিযোগ

বালিয়াডাঙ্গীতে প্রাথমিক শিক্ষক বদলিতে চলছে চরম নৈরাজ্য

বুধবার, ০৪ এপ্রিল ২০১৮ | ২:০৭ অপরাহ্ণ |

বালিয়াডাঙ্গীতে প্রাথমিক শিক্ষক বদলিতে চলছে চরম নৈরাজ্য
শিক্ষক বদলিতে সমন্বয়হীনতায় বিদ্যালয়গুলোতে লেখাপড়াতেও বিঘ্ন ঘটছে।

ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নানান অভিযোগ বালিয়াডাঙ্গীতে নিয়মবহির্ভূত বদলি করায় প্রাথমিক শিক্ষকদের মধ্য আতঙ্কে বিরাজ করছে।
শিক্ষক বদলি নিয়ে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায় প্রাথমিক শিক্ষা ক্ষেত্রে চলছে চরম নৈরাজ্য, বিশৃঙ্খলা ও অরাজকতা। বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সামশুল হক তিনি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের বদলির নীতিমালা লঙ্ঘন করে বিভিন্ন সরকারী প্রর্থমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বেপরোয়া বদলি করেছেন। শিক্ষা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ঘুষনিয়ে বদলির অভিযোগ উঠেছে। শিক্ষক বদলিতে সমন্বয়হীনতায় বিদ্যালয়গুলোতে লেখাপড়াতেও বিঘ্ন ঘটছে।

জানাগেছে, উপজেলার বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বেশকিছু শিক্ষক অনত্র বদলির জন্য ইতিপুর্বে উপজেলা শিক্ষাকর্মকর্তার কাছে আবেদন করে।
উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সামশুল আলমের স্বাক্ষরিত সুপারিশক্রমে গত ২৮মার্চ সকাল ১০টায় বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কমিটির সভায় শিক্ষক বদলি তালিকা চুড়ান্ত করে। সেই প্রেক্ষিতে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সামশুল আলমের স্বাক্ষরিত সুপারিশমালায় শিক্ষক বদলির একটি তালিকা ঠাকুরগাঁও জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের নিকট অনুমোদনের জন্য প্রেরণ করে। বদলির নীতিমালা লঙ্ঘনকরে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা স্বাক্ষরিত সুপারিশমা লায়আবেদনকারী কয়েকজন সিনিয়র শিক্ষককে বদলির তালিকা থেকে বাদ দিয়ে, রহস্য জনক কারনে জুনিয়ার শিক্ষকের আবেদনের তালিকা প্রেরণ করে।

webnewsdesign.com

অনুসন্ধানে জানা গেছে, উপজেলার ৯১ নং সিংহাড়ী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তিন সহকারী শিক্ষক অনত্র বদলীর জন্য ইতিপূর্বে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার নিকট আবেদন করে। সেই বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমান অনত্র বদলি আবেদন করে। সহকারী শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমান ২০০১ইং সালের ৭ই মে সহকারী শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষিকা নুরেশা খাতুন ২০০১ সালের ১৩ই ডিসেম্বর এবং তাহেরা বেগম ২০০৪ সালের ১৯ মে সহকারী শিক্ষিকা হিসেবে চাকুরীতে যোগদান করেন। অথচ তাদের মধ্য তিন বছর পরে তাহেরা বেগম চাকুরীতে যোগদান করার পরও সে জুনিয়ার শিক্ষিকা হিসেবে সেখাস থেকে সালডাঙ্গা সরকারী প্রার্থমিক বিদ্যালয়ে বদলির সুপারিশ করে।

অপরদিকে, উপজেলার ১০১ নং খালিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক বিনয় চন্দ্র ৪নং তিলকড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বদলির জন্য আবেদন করে এবং ৪ নং তিলকাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হরিপদ চন্দ্র ১২৪ নং চাকদহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বদলির জন্য আবেদন করলে তাদের আবেদন উপজেলা শিক্ষা কমিটি সুপারিশ করে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সামশুল আলমের স্বাক্ষরিত সুপারিশমালায় ৪৫ জন শিক্ষককের নামের তালিকা করে ঠাকুরগাঁও জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের নিকট প্রেরণ করে।

বিষয়টি এলাকায় ফাঁস হয়ে গেলে এতে আবেদনকারী সিনিয়র শিক্ষকদের মধ্য আতঙ্কে বিরাজ করে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক, কয়েকজন শিক্ষক এই প্রতিবেদককে জানান, বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সামশুল আলম এখানে যোগদানের পর থেকে তিনি শিক্ষকদের নিকট উৎকোচ ছাড়া কোন কাজ করেনা বলে অভিযোগ তুলে।

এ ব্যাপারে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা অফিসে সাক্ষাতকার নিতে গেলে তাকে না পেয়ে তার ব্যবহৃত মুঠোফনে যোগাগের চেষ্টা করা হলে তার সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। চলমান।

আপনার মুল্যবান মতামত দিন......

comments

প্রধান কার্যালয়: শিমুল লজ, ১২/চ/এ/২/৪ (২য় তলা), রোড নং ৪, শেরেবাংলা নগর,শ্যামলী,ঢাকা‌.
বার্তা বিভাগ-01763234375 অথবা 01673974507, ইমেইল- sangbadgallery7@gmail.com

আঞ্চলিক কার্যালয়: বঙ্গবন্ধু সড়ক, আধুনিক সদর হাসপাতাল সংলগ্ন, বাসস্ট্যান্ড, ঠাকুরগাঁও-৫১০০

2012-2016 কপি রাইট আইন অনুযায়ী সংবাদ-গ্যালারি.কম এর কোন সংবাদ ছবি ভিডিও কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া অন্য কোথায় প্রকাশ করা আইনত অপরাধ

Development by: webnewsdesign.com