বালিয়াডাঙ্গীতে স্বামীর আত্মহত্যার ৫ দিন পরে স্ত্রীর লাশ উদ্ধার

বুধবার, ০২ অক্টোবর ২০১৯ | ৬:০৯ অপরাহ্ণ |

বালিয়াডাঙ্গীতে স্বামীর আত্মহত্যার ৫ দিন পরে স্ত্রীর লাশ উদ্ধার
প্রতিনিধির পাঠানো তথ্য ও ছবিতে ডেস্ক রিপোর্ট

ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গীতে পারিবারিক কলোহের জের ধরে বিলাশ পাল (২৫) বিষপানে আত্মহত্যার ৫ দিন পর নিখোঁজ স্ত্রী
শ্রীমতি রাণীর (২০) মরদেহ ৫ দিন পর পুকুর থেকে উদ্ধার করেছে স্থানীয় থানা পুলিশ। মৃত শ্রীমতি রাণী বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার আমজানখোর ইউনিয়নের উদয়পুর গ্রামের বিলাশ পালের স্ত্রী ও পার্শ্ববর্তী ভেল্টু পালের মেয়ে।

এলাকাবাসি ও থানা সূত্রে জানা গেছে, বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার আমজানখোর ইউনিয়নের উদয়পুর গ্রামের বিলাশ পাল স্ত্রীর উপর অভিমান করে গত সোমবার রাত সাড়ে ৮টায় বিশ পান করে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে উদ্ধার করে বালিয়াডাঙ্গী
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করলে কিছুক্ষন পর তার জ্ঞান ফিরে এলে সে জানায়, স্ত্রীকে ভয় দেখানোর জন্য এ কাজ করেছেন তিনি। কিন্তু পরবর্তীতে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে।


বালিয়াডাঙ্গী থানার তদন্তাকরী কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক ইহাসাক আলী বলেন, বিলাশ পালের মরদেহ সৎকার করার পর গত বুধবার ভোররাতে নিখোঁজ হয় তার স্ত্রী শ্রীমতি রাণী। এরপর গত সোমবার সন্ধ্যায় এলাকাবাসী জগেশ চন্দ্র মাস্টারের
পুকুরে তার ভাসমান লাশ দেখতে পেয়ে থানায় খবর দেয় । পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তার লাশ উদ্ধার করে।

এব্যাপারে আমজানখোর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আকালু মোহাম্মদ জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, শ্রীমতি রাণী তার স্বামীর শোক সইতে না পেরে সে পানিতে ডুবে আত্মহত্যা করেছে। দুইদিন ধরে বৃষ্টির কারণে মরদেহ দেখা যায়নি। বিকালে আকাশ পরিষ্কার হলে গৃহবধূর মরদেহ স্থানীয়দের নজরে পড়ে।

তবে, নিহত গৃহবধূর বাবা ভেল্টু পাল ও তার পরিবারের লোকজনের অভিযোগ, মেয়েকে হত্যার পর পুকুরে ফেলে দিয়েছে গৃহবধূর শ্বশুরবাড়ির লোকজন। এ ব্যাপারে বালিয়াডাঙ্গী থানার ওসি মোসাব্বেরুল হক জানান, এর আগে গৃহবধূর স্বামীর
আত্মহত্যার বিষয়টি গোপন করেছে তার পরিবারের লোকজন।

স্থানীয় চেয়ারম্যানের মধ্যস্থতায় মরদেহের সৎকার করার পর আমরা খবর পাই। স্বামীর মৃত্যুর পর নিখোঁজের
বিষয়ে থানায় জানান নিহত ওই গৃহবধূর বাবা। তিনি বলেন, গৃহবধূর মরদেহটি পুকুর থেকে উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

এ সময় পুলিশ বিষয়টি গুরুত্বসহকারে তদন্ত করছে বলেও উল্লেখ্য করেন তিনি।

গত সোমবার সকালে দুওসুও ইউনিয়ন পরিষদ পাড়ার মজিবর রহমানের ছেলে ওদিনাজপুর সরকারি কলেজের অনার্স ৪র্থ বর্ষে ছাত্র মিজানুর রহমান (২৩) তার মুদিদোকান থেকে ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায় স্থানীয় থানা পুলিশ।

আপনার মুল্যবান মতামত দিন......

comments



যোগ্যতাই যখন বড় অযোগ্যতা

প্রধান কার্যালয়ঃ বঙ্গবন্ধু সড়ক, আধুনিক সদর হাসপাতাল সংলগ্ন, বাসস্ট্যান্ড, ঠাকুরগাঁও-৫১০০
বার্তা বিভাগ-01763234375 অথবা 01673974507, ইমেইল- sangbadgallery7@gmail.com

2012-2016 কপি রাইট আইন অনুযায়ী সংবাদ-গ্যালারি.কম এর কোন সংবাদ ছবি ভিডিও কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া অন্য কোথায় প্রকাশ করা আইনত অপরাধ

Development by: webnewsdesign.com