মাদকের কবলে এখনো ঠাকুরগাঁওবাসী, প্রশাসনের শেন্টারে চলছে মাদক বিক্রি

বৃহস্পতিবার, ০৯ মে ২০১৯ | ১:১৭ অপরাহ্ণ |

মাদকের কবলে এখনো ঠাকুরগাঁওবাসী, প্রশাসনের শেন্টারে চলছে মাদক বিক্রি
ফাইল ছবি

ঠাকুরগাঁওয়ে বিভিন্ন উপজেলায় সহ বিভিন্নভাবে মাদক নির্মূলে মাদক বিরোধী বিশেষ অভিযান এর মধ্য দিয়ে একাধিক মাদক ব্যবসায়ী এবং মাদকসেবী দের আটক করলেও কিছু অসাধু পুলিশ সদস্যকে ম্যানেজ করে সদর উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় গড়ে উঠেছে মাদকের আস্তানা। স্থানীয়দের অভিযোগের ভিত্তিতে জানা যায় মাদক ব্যবসায়ীদের শেল্টার দাতা ঠাকুরগাঁও সদর থানার ৫ জন অফিসার। ঠাকুরগাঁও সদর থানার এই ৫ জন অফিসার কে ম্যানেজ করতে পারলে মাদক বিক্রিতে মাদক ব্যবসায়ীদের আর কোন ঝামেলার সম্মুখীন হতে হয় না।

ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওই পাঁচজন অফিসারের নাম উল্লেখ করে সংবাদটি প্রকাশ করা না হলেও আমাদের বিশেষ বিশ্লেষণে এটা জানা যায় যে ঠাকুরগাঁও শহর ও বিভিন্ন ইউনিয়নের বিভিন্ন জায়গায় প্রকাশ্যে চলছে মাদক ব্যবসা। সেই সাথে ঠাকুরগাঁও জেলার রোড এলাকায় মাদকের আস্তানায় এখনো প্রকাশ্যে কয়েক জন নারী মাদক বিক্রি করছে বলে আমাদের কাছে তথ্য রয়েছে।

উক্ত ঘটনাটির সত্যতা যাচাইয়ে অনুসন্ধান কার্যক্রম চালালে জানা যায় সন্ধ্যা নামলেই ইয়াবা ও মাদকে আসক্ত তরুণদের আনাগোনা বেড়ে যায় ঠাকুরগাঁও রোড এলাকার এই মাদক আস্তানায়। উপরোক্ত ঘটনার সত্যতা যাচাইয়ে বাংলাদেশ প্রতিদিন জাতীয় পত্রিকার এক প্রতিবেদক এক ইয়াবা ক্রেতার তার সঙ্গে স্পোর্ট এগিয়ে ইয়াবা ট্যাবলেট বিক্রি পত্যক্ষ করে। সোর্সের মাধ্যমে মাদক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ৬০০ টাকার বিনিময়ে ওই ক্রেতা দুটি ইয়াবা ট্যাবলেট কেনেন। প্রকাশ্যে মাদক বিক্রি হওয়ার তথ্য পাওয়ার পর সরেজমিনে গিয়ে সত্যতা যাচাইয়েও একই চিত্র পাওয়া যায়।

স্থানীয়রা বলেন ঠাকুরগাঁও থানা পুলিশের সাথে সখ্য থাকায় এ নিয়ে তারা কোনো কথা বলতে চান না। স্থানীয়দের এই অভিযোগের কারন জানতে চাইলে তিনারা বলেন মাদক বিষয়ে কথা বললেই মাদকের সাঁজানো মামলায় ফেঁসে যেতে হয় তাদের। সদর এলাকার সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা জানান মাদক নিয়ন্ত্রণ এর সম্পূর্ণ বিষয়টি দেখভাল করার দায়িত্ব প্রশাসনের। প্রশাসনের কিছু অসাধু অফিসারগণ গপনে মাদক কারবার এর সাথে জড়িত। শুধু তাই নয় আপু কথা নাই নিত্য দিনে ১০ থেকে ১২ জন সাধারণ মানুষকে সন্দেহজনকভাবে ধরে মোটা অংকের টাকা নিয়ে ৪৩ ধারায় আদালতে চালান করে দেয়। এমন বিপদ মুখি পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষ কিভাবে নিরাপদে থাকবে, এবং সমাজ থেকে কিভাবে মাদক নির্মল করা যাবে এ বিষয়ে উচ্চতম প্রশাসন ব্যবস্থার কাছে প্রশ্ন রেখেছেন সাধারণ মানুষ।

এ বিষয়ে সাংবাদিকরা কিছু লিখলে সাংবাদিকদের মাদক ব্যবসায়ী বানিয়ে আটক করার হুমকিও দেয়। এ বিষয়ে ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি আশিকুর রহমান বলেন, আগে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার বিভিন্ন স্পটে প্রকাশ্যে মাদক বিক্রি চলত। এগুলো আমরা বন্ধ করে দিয়েছি, এখন শহরে কোন মাদক ব্যবসায়ী নেই। ভ্রাম্যমাণ কেউ কেউ মাদক বিক্রি করে থাকে। তাদের ধরতে আমরা নিয়মিত অভিযান চালাচ্ছি। কতিপয় পুলিশের বিরুদ্ধে কিছু অভিযোগ উঠেছে এ বিষয়ে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করব

আপনার মুল্যবান মতামত দিন......

comments

প্রধান কার্যালয়: শিমুল লজ, ১২/চ/এ/২/৪ (২য় তলা), রোড নং ৪, শেরেবাংলা নগর,শ্যামলী,ঢাকা‌.
বার্তা বিভাগ-01763234375 অথবা 01673974507, ইমেইল- sangbadgallery7@gmail.com

আঞ্চলিক কার্যালয়: বঙ্গবন্ধু সড়ক, আধুনিক সদর হাসপাতাল সংলগ্ন, বাসস্ট্যান্ড, ঠাকুরগাঁও-৫১০০

2012-2016 কপি রাইট আইন অনুযায়ী সংবাদ-গ্যালারি.কম এর কোন সংবাদ ছবি ভিডিও কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া অন্য কোথায় প্রকাশ করা আইনত অপরাধ

Development by: webnewsdesign.com