মা নিয়ে যেত খদ্দরের কাছে, বাবা করতো মারধর

শুক্রবার, ০৮ জুন ২০১৮ | ৭:৪৪ অপরাহ্ণ |

মা নিয়ে যেত খদ্দরের কাছে, বাবা করতো মারধর
ছবি: অনলাইন

বরগুনায় এক তরুণীকে জোরপূর্বক পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করায় এক মা ও তার দ্বিতীয় স্বামীকে গ্রেফতার করেছে বরগুনা থানা পুলিশ।সোমবার রাতে সদর উপজেলার কেওড়াবুনিয়া ইউনিয়নের আঙ্গারপাড়া গ্রাম থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এ ঘটনায় বরগুনা থানায় একটি মামলা করেছেন ভুক্তভোগী তরুণী।

মামলার বিবরণ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বাবার মৃত্যুর পর ১৯ মাস বয়স থেকে মায়ের দ্বিতীয় স্বামীর ঘরে অযত্ন- অবহেলায় বেড়ে ওঠে ওই তরুণী।

webnewsdesign.com

স্থানীয় একটি মাদরাসায় সপ্তম শ্রেণি পর্যন্ত লেখাপড়া চললেও একসময় তা বন্ধ হয়ে যায়। এরপর থেকেই তাকে জোরপূর্বক পতিতাবৃত্তির কাজে বাধ্য করা হয়।

নির্যাতিত তরুণী জানায়, শারীরিক অসুস্থতা এবং মানসিক অবস্থা যেমনই থাকুক না কেন নিষ্ঠুর মা আর তার স্বামীর নির্দেশে দিনরাত তাকে বাধ্য করেছে পতিতাবৃত্তিতে। রাজি না হলে চলতো নিষ্ঠুর নির্যাতন। দীর্ঘ ১০ বছর ধরে এমন নির্মম নির্যাতনের একপর্যায়ে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে ওই তরুণী।

পরে গর্ভপাত ঘটানোর জন্য বরগুনার বিভিন্ন বেসরকারি ক্লিনিকে তাকে নিয়ে যায় অভিযুক্ত মা ও তার স্বামী। কেউ রাজি না হওয়ায় গর্ভপাতের ওষুধ খাওয়ালে সাত মাসের এক কন্যা শিশুর জন্ম দেয় ওই তরুণী।

জন্মের পর শিশুটির মুখে লবণ দিয়ে হত্যা করে ভুক্তভোগী ওই তরুণীর মা ও মায়ের দ্বিতীয় স্বামী এবং দ্বিতীয় স্বামীর মেয়ে। হত্যার পর বাড়ির পাশের এক ঝোঁপের মধ্যে শিশুটিকে মাটিচাপা দেয় তারা।

গত ২ জুন রাতেও তাকে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করে তার মা ও মায়ের স্বামী। সর্বশেষ সোমবার রাতে পুনরায় তাকে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করা হয়। শারীরিক অসুস্থতার কারণে অপারগতা প্রকাশ করে তাদের কাছে অনুনয়-বিনয় করে ওই তরুণী। অনুনয়-বিনয় না শুনে তার ওপর নির্মম নির্যাতন চালায় মা ও তার দ্বিতীয় স্বামী। একপর্যায়ে চিৎকার শুরু করে তরণী। চিৎকারের খবর পেয়ে তাকে উদ্ধার করে বরগুনা থানায় নিয়ে যায় প্রতেবেশীরা।

বরগুনা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম মাসুদুজ্জামান বলেন, এ ঘটনায় ভুক্তভোগী তরুণী সোমবার রাতে মামলা করেছেন। রাতেই সদর উপজেলার কেওড়াবুনিয়া ইউনিয়নের আঙ্গার পাড়া গ্রাম থেকে অভিযুক্ত লাইলী বেগম (৪৫) ও তার দ্বিতীয় স্বামী খালেক মোল্লাকে (৫৫) গ্রেফতার করা হয়েছে। আমরা ঘটনার প্রাথমিক সত্যতা পেয়েছি। মঙ্গলবার গ্রেফতারকৃতদের আদালতে পাঠানো হয়েছে। ওই তরুণীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আপনার মুল্যবান মতামত দিন......

comments

প্রধান কার্যালয়: শিমুল লজ, ১২/চ/এ/২/৪ (২য় তলা), রোড নং ৪, শেরেবাংলা নগর,শ্যামলী,ঢাকা‌.
বার্তা বিভাগ-01763234375 অথবা 01673974507, ইমেইল- sangbadgallery7@gmail.com

আঞ্চলিক কার্যালয়: বঙ্গবন্ধু সড়ক, আধুনিক সদর হাসপাতাল সংলগ্ন, বাসস্ট্যান্ড, ঠাকুরগাঁও-৫১০০

2012-2016 কপি রাইট আইন অনুযায়ী সংবাদ-গ্যালারি.কম এর কোন সংবাদ ছবি ভিডিও কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া অন্য কোথায় প্রকাশ করা আইনত অপরাধ

Development by: webnewsdesign.com