শত অনিয়ম করেও বহাল তবিয়তে পোরশার শিক্ষা অফিসার অপু…

রবিবার, ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ১০:৫৩ অপরাহ্ণ |

শত অনিয়ম করেও বহাল তবিয়তে পোরশার শিক্ষা অফিসার অপু…
প্রতিনিধির পাঠানো তথ্য ও ছবিতে ডেস্ক রিপোর্ট

পোরশা (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ

নওগাঁর পোরশা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার সাফিয়া আক্তার অপুর শত অনিয়ম করেও বহাল তবিয়তে রয়েছেন। তার বিরুদ্ধে ১৫ আগষ্ঠ জাতীয় শোক দিবস অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত, ছুটি না নিয়ে অফিসে অনুপস্থিত, স্লিপের টাকা আত্নসাৎ, টার্মিনাল পরীক্ষার টাকা আত্নসাৎ ও শিক্ষকদের সাথে অসদাচরণ সহ বিস্তর অভিযোগ রয়েছে ।


শিক্ষা কর্মকর্তা অপুর অনিয়মের ব্যাপারে বিভিন্ন সংবাদপত্রে খবর প্রচারিত হলে সাংবাদিকের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে যান ও মামলা করার হুমকি দেন তিনি। তার নিজস্ব গুন্ডাবাহিনী দিয়ে সাংবাদিকদের নাজেহাল করার চেষ্টাও করেন। কোন সাংবাদিক অভিযোগের সত্যতা জানার জন্য তার অফিসে গেলে উল্টো সাংবাদিকের বিরুদ্ধে অর্থের, অশালিন ও শ্লীলতাহানির অভিযোগ করেন এবং শিক্ষক নামধারী কিছু গুন্ডাবাহিনীকে ফোনে অফিসে ডেকে নিয়ে সাংবাদিকদের নাজেহাল করার চেষ্টা করেন।

এ ব্যাপারে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক প্রধান শিক্ষক বলেন, ম্যাডাম খুব সুন্দরী। এই প্রধান হাতিয়ারকে ব্যবহার করে উপরের সবাইকে তিনি নিজের বশে রাখেন। তার বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ থাকার পরেও অদৃশ্য কারনে সব পার পেয়ে যান। এর মূলেই রয়েছে তিনি একজন সুন্দরী মহিলা কর্মকর্তা। তার জায়গায় অন্য কোন পুরুষ কর্মকর্তা হলে এতদিনে তার চাকুরী চলে যেতো।

সরেজমিনে জানা গেছে তিনি প্রতিটি স্কুল থেকে স্লিপের এক হাজার টাকা করে কমিশন নিয়েছেন। ২০১৯ সালের টার্মিনাল পরীক্ষার সকল ফি ব্যাংক একাউন্টের পরিবর্তে শিক্ষা অফিসার নিজ হাতে হাতে লেনদেন করেছেন। পরীক্ষা পরিচালনা কমিটির কাছে এখন পর্যন্ত কোন হিসাব পেশ করা হয়নি। সাউন্ড সিস্টেম (বক্সের) ভাড়া বাবদ ১২শত করে টাকা নিয়েছেন এবং এই টাকা উত্তোলন করেছেন তারই অফিস সহায়ক আবু মুসার মাধ্যমে।

আবু মুসা এ ব্যাপারে জানান, আমি নিয়ম নীতি তেমন জানিনা। ম্যাডাম টাকা তুলতে বলেছে, আমি টাকা তুলে অফিস সহকারী তসলিমের মাধ্যমে ম্যাডামের কাছে পৌছে দিয়েছি।

এ ব্যাপারে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আমিনুল ইসলাম মন্ডলের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, পোরশার শিক্ষা অফিসার অপুর বিরুদ্ধে অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া গিয়েছে। আমি দেশের বাইরে থাকার কারনে ব্যাবস্থা গ্রহন করা সম্ভব হয়নি। তবে খুব শিঘ্রই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

২০১৯ সালের টার্মিনাল পরীক্ষার সদস্য সচিব সহকারী শিক্ষা অফিসার মোঃ ওলিউল ইসলাম জানান, আমি পরীক্ষার কমিটির সদস্য সচিব হলেও কোন কারন ছাড়াই আমার কাছ থেকে সকল খাতাপত্র শিক্ষা অফিসার (অপু) নিয়ে নিয়েছে এবং যার কারনে সেই টার্মিনাল পরীক্ষার হিসাবের ব্যাপারে আমার জানা নেই।

এ ব্যাপারে শিক্ষা অফিসার সাফিয়া আক্তার অপুর কাছে জানতে চাইলে তিনি তার বিরুদ্ধে ওঠা সকল অভিযোগ অস্বীকার করেন।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments



ইবির রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সাবেক সভাপতির বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ…

প্রধান কার্যালয়ঃ বঙ্গবন্ধু সড়ক, আধুনিক সদর হাসপাতাল সংলগ্ন, বাসস্ট্যান্ড, ঠাকুরগাঁও-৫১০০
বার্তা বিভাগ-01763234375 অথবা 01673974507, ইমেইল- sangbadgallery7@gmail.com

2012-2016 কপি রাইট আইন অনুযায়ী সংবাদ-গ্যালারি.কম এর কোন সংবাদ ছবি ভিডিও কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া অন্য কোথায় প্রকাশ করা আইনত অপরাধ

Development by: webnewsdesign.com