জামালপুরে শিশু কন্যাকে ধর্ষণের দায়ে পিতার যাবজ্জীবন

শিশু কন্যাকে ধর্ষণের দায়ে পিতার যাবজ্জীবন

মঙ্গলবার, ২৭ মার্চ ২০১৮ | ৭:৪৬ অপরাহ্ণ |

শিশু কন্যাকে ধর্ষণের দায়ে পিতার যাবজ্জীবন
জামালপুরে শিশু কন্যাকে ধর্ষণের দায়ে পিতার যাবজ্জীবন

জামালপুরের বহুল আলোচিত ১২ বছরের শিশু কন্যাকে ধর্ষণের দায়ে পিতা রবিউল ইসলামকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে আরও পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে। জামালপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক রেজা মো. আলমগীর হোসেন এ রায় দেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, জামালপুর পৌর এলাকার রশিদপুর গ্রামের রবিউল ইসলাম একজন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী। তিনি তার পঞ্চম শ্রেণি পড়ুয়া শিশু কন্যাকে ফুসলিয়ে নিজ ঘরে পর্যায়ক্রমে সাত-আট দিন জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে শিশুটি গর্ভবতী হয়। এরপরে ২০১৭ সালের ১৫ জুলাই এ ঘটনা জানাজানি হলে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী রবিউল ইসলামকে আটক করে সদর থানায় সোপর্দ করে। পরে ওইদিন রাতেই শিশুটির মা বাদী হয়ে শিশুটির পিতা রবিউল ইসলামকে আসামি করে জামালপুর সদর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলাটির তদন্ত শেষে তদন্তকারী জামালপুর সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই)  জোসনা বেগম ২০১৭ সালের ৯ সেপ্টেম্বর জামালপুরের বিচারিক হাকিমের আদালতে আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। অভিযোগটি শিশু নির্যাতনের হওয়ায় মামলাটি পরবর্তীতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তরিত হয়।

webnewsdesign.com

আজ মঙ্গলবার ওই মামলায় ১০ জন স্বাক্ষীর স্বাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আসামি রবিউল ইসলামের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় এ সাজা দেন জামালপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক রেজা মো. আলমগীর হোসেন। রায় ঘোষণার পর আসামিকে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

পরে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মো. আকরাম হোসেন সংবাদ গ্যালিারিকে বলেন, মামলার এ রায়ে রাষ্ট্রপক্ষ সন্তোষ প্রকাশ করেছে এবং এ রায়ের মাধ্যমে একটি দৃষ্টান্ত স্থাপিত হয়েছে।

অপরদিকে মামলার বিবাদী পক্ষের কোনো আইনজীবী রায় ঘোষণার সময় আদালতে না আসায় তাদের বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

জানা গেছে, নির্যাতিতা ওই শিশুটি মামলা চলা অবস্থায় একটি ছেলে সন্তান প্রসব করেছে। বর্তমানে সে নবজাতকসহ ঢাকায় আইন ও সালিস কেন্দ্রের তত্ত্বাবধানে একটি শেল্টার হোমে রয়েছে।

এ বিষয়ে উন্নয়ন সংঘের মানবসম্পদ বিভাগের পরিচালক জাহাঙ্গীর সেলিম সংবাদ গ্যালিারিকে বলেন, উন্নয়ন সংঘের আইআইআরসিসিএল প্রকল্পের আওতায় নির্যাতিত শিশুটির আইনি ও চিকিৎসা সহায়তা দেওয়া হয়। পরবর্তীতে উন্নয়ন সংঘের উদ্যোগেই নির্যাতিত গর্ভবতী শিশুটিকে ঢাকায় আইন ও সালিস কেন্দ্রের একটি শেল্টার হোমে রাখা হয়। আইন ও সালিস কেন্দ্রের শেল্টার হোমে থাকা অবস্থায় শিশুটি একটি ছেলে সন্তান প্রসব করে। নবজাতক শিশুটির বয়স বর্তমানে সাত বছর চলছে। তারা দুজনেই সুস্থ আছে।

আপনার মুল্যবান মতামত দিন......

comments

প্রধান কার্যালয়: শিমুল লজ, ১২/চ/এ/২/৪ (২য় তলা), রোড নং ৪, শেরেবাংলা নগর,শ্যামলী,ঢাকা‌.
বার্তা বিভাগ-01763234375 অথবা 01673974507, ইমেইল- sangbadgallery7@gmail.com

আঞ্চলিক কার্যালয়: বঙ্গবন্ধু সড়ক, আধুনিক সদর হাসপাতাল সংলগ্ন, বাসস্ট্যান্ড, ঠাকুরগাঁও-৫১০০

2012-2016 কপি রাইট আইন অনুযায়ী সংবাদ-গ্যালারি.কম এর কোন সংবাদ ছবি ভিডিও কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া অন্য কোথায় প্রকাশ করা আইনত অপরাধ

Development by: webnewsdesign.com