সরকার ও ইসিকে কড়া বার্তা দিবেন ড. কামাল

শনিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০১৮ | ১২:৪৬ অপরাহ্ণ |

সরকার ও ইসিকে কড়া বার্তা দিবেন ড. কামাল
ফাইল ছবি

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ও গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন এক জরুরি সংবাদ সম্মেলন ডেকেছেন। শনিবার বিকেল ৩টায় জাতীয় প্রেসক্লাবে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে বলে শুক্রবার রাতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে।

সূত্র জানিয়েছে, আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঐক্যফ্রন্টের শরিক দলগুলোর মধ্যে আসন বণ্টনের বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া, বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে অব্যাহত গ্রেপ্তার ও মামলার পরিপ্রেক্ষিতে পরবর্তী করণীয় নির্ধারণে এ সংবাদ সম্মেলন ডেকেছেন ড. কামাল হোসেন। একইসঙ্গে সরকার ও নির্বাচন কমিশনকে (ইসি) কড়া বার্তা দিবেন গণফোরাম সভাপতি।


এদিকে শুক্রবার গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে একাদশ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিলের পর জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের স্ট্যায়ারিং কমিটির প্রথম বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই বৈঠকে তিন ডিসেম্বর শীর্ষ নেতাদের আসন বণ্টন ছাড়াও নির্বাচনী ইশতেহার, নির্বাচনী কৌশল নিয়েও আলোচনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটি।

আসন্ন নির্বাচনে কমিশনের মনোনয়ন বাছাইয়ে যারা টিকবেন তাদের মধ্য থেকে যোগ্য প্রার্থীদের মনোনয়ন দেয়া হবে এবং ঐক্যফ্রন্টের নির্বাচন কমিশনের মনোনয়ন বাছাইয়ের ফলাফল পর্যবেক্ষণ করা হবে বলেও সিদ্ধান্ত হয় বৈঠকে।


এ বিষয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাংবাদিকদের বলেন, বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে শনিবার ড. কামাল হোসেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের একটি সংবাদ সম্মেলন করবেন।

তিনি বলেন, ‌‌আসন্ন একাদশ নির্বাচনে গণতান্ত্রিক নেতাকর্মীরা যাতে মাঠে থাকতে না পারে ও নির্বাচনে অংশ নিতে না পারে, এজন্য পুরনো কায়দায় মিথ্যা মামলায় তাদের আসামি করা হচ্ছে। তাদের গায়েবি মামলায় গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। নির্বাচনে যারা প্রার্থী তাদেরও গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। নির্বাচনের ‘লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড’ এর ন্যূনতম অবস্থা এখন নেই।


মির্জা ফখরুল হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, আমরা এই অবস্থার পরিবর্তন চাই। অবিলম্বে গ্রেপ্তার বন্ধ করতে হবে, ঘরে ঘরে তল্লাশি বন্ধ করতে হবে। নির্বাচনের পরিবেশ তৈরি করতে হবে। যাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে অবিলম্বে তাদের মুক্তি ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছি। অন্যথায় যে পরিস্থিতি সৃষ্টি হচ্ছে তার জন্য সরকার ও নির্বাচন কমিশন দায়-দায়িত্ব বহন করবে।

ঐক্যফ্রন্ট যে কোনও অবস্থাতে নির্বাচনে থাকবে এবং জনগণের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনার জন্য ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন করবে বলেও জানান বিএনপি মহাসচিব। বলেন, ২ ডিসেম্বরের পরে বাছাই হয়ে গেলে আমরা আপনাদের চূড়ান্ত হিসাব জানাতে পারব। ফ্রন্টের নির্বাচনী ইশতেহার প্রণয়নের কাজ চলছে। শিগগিরই আপনারা ইশতেহারও দেখতে পারবেন।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন- বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, বিএনপির মওদুদ আহমদ, গণফোরামের মোস্তফা মহসিন মন্টু, সুব্রত চৌধুরী, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী, হাবিবুর রহমান তালুকদার, নাগরিক ঐক্যের মাহমুদুর রহমান মান্না, শহীদুল্লাহ কায়সার, মোমিনুল ইসলাম, জাহেদ উর রহমান, জেএসডির আবদুল মালেক রতন, জাতীয় ঐক্যপ্রক্রিয়ার সুলতান মো: মনসুর এবং গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ডা: জাফরুল্লাহ চৌধুরী প্রমুখ।

আপনার মুল্যবান মতামত দিন......

comments

প্রধান কার্যালয়: শিমুল লজ, ১২/চ/এ/২/৪ (২য় তলা), রোড নং ৪, শেরেবাংলা নগর,শ্যামলী,ঢাকা‌.
বার্তা বিভাগ-01763234375 অথবা 01673974507, ইমেইল- sangbadgallery7@gmail.com

আঞ্চলিক কার্যালয়: বঙ্গবন্ধু সড়ক, আধুনিক সদর হাসপাতাল সংলগ্ন, বাসস্ট্যান্ড, ঠাকুরগাঁও-৫১০০

2012-2016 কপি রাইট আইন অনুযায়ী সংবাদ-গ্যালারি.কম এর কোন সংবাদ ছবি ভিডিও কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া অন্য কোথায় প্রকাশ করা আইনত অপরাধ

Development by: webnewsdesign.com